রমা চ্যাটার্জি, দক্ষিণ দিনাজপুরঃ  সিবিএসসি বোর্ডের রেজাল্ট ঘিরে বিতর্কের মুখে জোরালো দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় বালুরঘাটে একটি ইংরেজী মাধ্যমের বেসরকারি স্কুল। জানা গেছে চলতি বছর করোনা প্রকোপ বেড়ে যাওয়ার কারণে সরকারের তরফ থেকে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক কোনো পরীক্ষায় নেওয়া হয়নি। বিগত বছরগুলির রেজাল্টের উপর দ্বাদশ শ্রেণীর ফলাফল ঘোষণা করা হয়। কিন্তু প্রশ্ন এখানে স্বজনপোষণের কারণ উঠে দাঁড়িয়েছে বলে বেশকিছু অভিভাবক ও ছাত্রদের মধ্যে বিক্ষোভ দেখা গেল। এদিন বালুরঘাটে একটি বেসরকারী ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে বিরুদ্ধে স্বজনপোষণের অভিযোগ উঠে এলো। স্কুলের শিক্ষকদের কাছে যেসকল ছাত্র-ছাত্রীরা পড়াশোনা করেছে শুধুমাত্র তাদেরকেই নাম্বার পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ। 

ওই বেসরকারি স্কুলের প্রিন্সিপালকে ঘেরাও করে  বিক্ষোভ দেখায় স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী এবং অভিভাবকরা। তাদের অভিযোগ মাধ্যমিক ও একাদশ শ্রেণির বেশিরভাগ ক্ষেত্রে যাদের ৮০ থেকে ৮৫ শতাংশ নাম্বার পেয়েছে তারা উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় গড় নাম্বার পেয়ে আছে, কিন্তু মূলত যে বিষয়ে তারা অভিযোগ করেছে তাদের থেকে পড়াশোনায় বিগত বছরে যারা পিছিয়ে ছিল তারা স্কুলের শিক্ষকদের কাছে পড়ার কারণে এ বছর ভালো ফলাফল করেছে। খুব তো ছাত্র-ছাত্রীদের দাবি তাদের সঠিক নাম্বার দেওয়া হোক কারণ অধিকাংশ ছাত্রছাত্রীই নাম্বার কম পাওয়ার কারণে তাদের আগামী ভবিষ্যৎ মসৃণ নয় বলে জানিয়েছেন এক ছাত্র। ছোটবেলা থেকেই অংকে মেধা থাকলেও উচ্চ মাধ্যমিকে ভালো ফল নেওয়ার কারণে আগামীতে অংক নিয়ে পড়তে পারবে না বলে জানান বিদ্যালয়ের ছাত্র। যদিও এই বিষয়ে স্কুলের প্রিন্সিপালের কাছে জানা হলে তিনি বিষয়টি ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here