তারকনাথ সিট, মুর্শিদাবাদঃ রথযাত্রা, লোকারণ্য, মহা ধুমধাম 

 ভক্তেরা লুটায়ে পথে করিছে প্রণাম।

পথ ভাবে ‘আমি দেব’, রথ ভাবে ‘আমি’,

মূর্তি ভাবে ‘আমি দেব’—হাসে অন্তর্যামী…

     সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মোতাবেক ও স্বাস্থ্যবিধির কথা মান্যতা দিয়ে মুর্শিদাবাদের কান্দি রাধাবল্লব জিউর মন্দিরের রথযাত্রা এবছর বন্ধ রাখলো মন্দির কর্তৃপক্ষ। মন্দিরের সেবায়েত জানিয়েছেন বিগত ২০০ বছর ধরে তৎকালীন কান্দির রাজা গৌরাঙ্গ গোবিন্দ সিংহ কান্দির রাধাবল্লব জিউর মন্দিরে জগন্নাথ বলরাম ও সুভদ্রার রথযাত্রার প্রচলন করেছিল। নীলাচল পুরীর রথের মতো এখানেও জগন্নাথ দেবকে রথের দিন রথে চাপিয়ে মাসির বাড়ি নিয়ে যাওয়া হতো ও উল্টো রথের দিন মাসির বাড়ি থেকে আবার রথে চাপিয়ে জগন্নাথ, বলরাম ও সুভদ্রাকে তার নিজের মন্দিরে নিয়ে আসা হতো কিন্তু বিগত কয়েক বছর ধরে কান্দির রাধাবল্লব জিউর মন্দিরের জগন্নাথ দেবের মাসির বাড়ি পরিচর্যার অভাবে পরিতপ্ত হয়ে যাবার কারণে রাধাবল্লব জিউর মন্দিরেয় অস্থায়ী মাসির বাড়ির ব্যাবস্থা করা হত, কিন্তু  করোনা মহামারীর জেরে ২০২০ সালে বন্ধ থাকে কান্দির রাধাবল্লব মন্দিরের রথযাত্রা ২০২১ সালে করোনা মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউ এখনও কাটেনি যার জন্য সুপ্রিমকোর্ট নির্দেশ দিয়েছে জমায়েত না করতে ও রথযাত্রার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

 যার জন্য এ বছরও রথযাত্রা বন্ধ রাখবে মন্দির কর্তৃপক্ষ। বিষন্নতার সঙ্গে এবছরের রথযাত্রা পালিত হবে কান্দির রাধাবল্লব জিউর মন্দির, শুধুমাত্র পুজো টুকুই বহাল রেখে ও অস্থায়ী মাসির বাড়িতে জগন্নাথ দেবকে স্থানান্তর করা হবে বলে জানিয়েছে মন্দিরের প্রধান পুরোহিত প্রশান্ত অধিকারী। রথের চাকা না গড়ানোয় কান্দিবাসীর ব্যাপক মন খারাপ। সামনের বছর করোনা মহামারী কেটে আবার যেন রথের দড়ি টানতে পারে সেই প্রার্থনা করছে এখন জগন্নাথ বলরাম সুভদ্রা-র কাছে ভক্তরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here