পল মৈত্র, দক্ষিণ দিনাজপুরঃ দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুরে বৃহস্পতিবার সাতসকালে একদম কাকভোরে এক ব্যবসায়ীর মৃতদেহ উদ্ধার হলো। প্রাতঃভ্রমণে বেড়ানো এলাকার বাসিন্দারা মাথা থেঁতলানো অবস্থায় এলাকারই এক ব্যবসায়ীর মৃতদেহ পরে থাকতে দেখেন । এরপর গঙ্গারামপুর থানায় জানানো হলে ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশবাহিনী ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার উপস্থিত হন, এরপর পুলিশ আশেপাশের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে, মৃতদেহ উদ্ধার করে বালুরঘাট হাসপাতালে মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছে।জানা গেছে ওই ব্যক্তির নাম মানিক সাহা (৪৭) বাড়ি গঙ্গারামপুর পৌরসভার ১৩ নং ওয়ার্ডের ভোদং পাড়া এলাকায় পেশায় তিনি একজন ব্যবসায়ী। 

সূত্রের খবর বুধবার রাতে তিনি বাড়ি থেকে পিকনিক করতে যাবেন বলে পরিবারের লোকেদের জানিয়ে যান এরপর রাত দশটা নাগাদ মৃত ব্যক্তির স্ত্রী মানিক দাসকে ফোন করলে তিনি জানান তিনি বাড়িতে ফিরছেন এরপরই তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি, বৃহস্পতিবার সকালে নৃশংসভাবে ক্ষতবিক্ষত মাথা থেঁতলানো  অবস্থায় মৃতদেহ গঙ্গারামপুর পৌরসভার ১৩ নং ভোদংপাড়া এলাকার মোড়ের কাছ থেকে উদ্ধার করেন গঙ্গারামপুর থানার পুলিশ। পাশাপাশি এদিন সাতসকালে কাকভোরে প্রাতঃভ্রমণে যাওয়া এলাকার বাসিন্দারা মৃতদেহটি প্রথমে দেখতে পান ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে পাশাপাশি মৃতের পরিবারের তরফে ঘটনার তদন্ত করে দোষীদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন। এই ঘটনার জেরে সমস্ত গঙ্গারামপুর জুড়ে আতঙ্ক ও চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে অনেকেই মনে করছেন দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুরে ব্যবসায়িক কারণে খুন করা হলো ব্যবসায়ী মানিক দাসকে। তবে পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে গঙ্গারামপুর থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here