নিখিল কর্মকার, নদীয়াঃ কার্যত লকডাউনে কর্মহীন হয়ে পড়ায় মানসিক অবসাদে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী এক ব্যক্তি, ঘটনাটি শান্তিপুর বেলঘড়িয়া দু’নম্বর অঞ্চলের কালিপুর এলাকায়। পরিবারের কাছ থেকে জানা যায় সঞ্জয় দাস(৩৫) পেশায় পরিবহন শ্রমিক ছিলেন কিন্তু কার্যত লকডাউনে কাজ না থাকায় অবশেষে কালিপুর বাজারে একটি দোকান খোলার সিদ্ধান্ত নেন। সে মতোই এদিন সেই দোকানের শুভ উদ্বোধন হওয়ার কথা ছিল সকাল দশটা নাগাদ পরিবারের লোকজন দোকান ঘরে গিয়ে দেখে সঞ্জয় দাস দোকান ঘরের ভেতরে ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে। এরপর তড়িঘড়ি সঞ্জয় দাসকে শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে পরিবার সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে। স্বভাবতই এই অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘিরে এলাকায় নেমে আসে শোকের ছায়া। 

স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায় বেশ কয়েক বছর আগে মারা যান স্ত্রী, তারপর একমাত্র সন্তানকে নিয়ে কোনরকমে গাড়ির ড্রাইভারি করে সংসার চালাচ্ছিলেন। কিন্তু কার্যত লকডাউনে তাও বন্ধ হয়ে যায় এরপর থেকে ক্রমশ মানসিক যন্ত্রণায় ভুগছিলেন সঞ্জয় দাস। কোনরকমে সংসার চালানোর জন্য একটি দোকান খোলার সিদ্ধান্ত নেয় এদিন সেই দোকানের উদ্বোধনের আগেই এমন ঘটনাই হতবাক পরিবার। তবে তার পুত্র সন্তানের এখন কি হবে সেটা নিয়ে দুশ্চিন্তায় এলাকার লোকজন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় শান্তিপুর থানার পুলিশ এবং মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায় রানাঘাট মহাকুমা হাসপাতালে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here