তারকনাথ সিট, মুর্শিদাবাদঃ বহরমপুরের বিজেপি কার্যালয় সাংবাদিক বৈঠক করলেন বিজেপির জেলা সভাপতি বিধায়ক গৌরীশংকর ঘোষ তিনি জানালেন ভোট-পরবর্তী হিংসায় গোটা রাজ্য থেকে এই জেলা মুর্শিদাবাদ সন্ত্রাস চলছে। কিছুদিন আগে কেন্দ্রের মানব অধিকার আধিকারিকরা এসেছিল বহরমপুরে এবং যারা আক্রান্ত হয়েছেন তাদের সঙ্গে কথা বলে আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল কিন্তু তার আগে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন থানার আইসি, ওসি ও তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে সেইসব পরিবারগুলিকে অভিযোগ জানাতে নিষেধ করা হয়েছিল এখন এমন পরিস্থিতি তৃণমূলের পক্ষ থেকে বিজেপি কর্মীদের বলা হচ্ছে হেরে গেলে গ্রামে ঢুকতে গেলে পয়সা দিতে হবে এবং যেসব বিজেপি কর্মী বাড়ির মা বোনেরা আছে তাদের মান-সম্মান নিয়ম হানি করা হচ্ছে অথচ ধর্ষকেরা প্রকাশ্যে রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছে রাজ্যে আইন ব্যবস্থা বলে কিছুই নেই বিজেপি কর্মী যাদের জমি আছে তাদের ফসল পুড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে ভ্যাকসিন নিয়ম দুর্নীতি চালাচ্ছে প্রশাসন ও শাসক দল বিজেপি কর্মীরা ভ্যাকসিন পাচ্ছেন না এছাড়াও বিভিন্ন দিক গুলি নিয়ে প্রশাসনের গাফিলতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। কোথাও জোর করে তৃণমূলে যোগ দেয়ার কথা বলা হচ্ছে কোন বিজেপি কর্মীর বাড়িতে সুন্দর বউ বা মেয়ে থাকলে তৃণমূল নেতার বাড়িতে দিয়ে আসতে হবে এইরকম নোংরামো চলছে রাজ্য ও জেলা জুড়ে। 

 ভ্যাকসিনের টোকেন নিতে হচ্ছে তৃণমূল কাউন্সিলর এর কাছ থেকে প্রশাসক রাজনৈতিক দলের কর্মীর মতো কাজ করছে। যারা ভোট পরবর্তী হিংসার কবলে পড়েছে এবং অভিযোগ জানিয়েছে তাদের অবিলম্বে সুরক্ষা দিতে হবে এবং জমির পাট্টা নিয়ে দুর্নীতি চালাচ্ছে শাসক দল। গোটা রাজ্য জুড়ে ভুয়ো অফিসার এ ভরে গেছে এই যে পশ্চিমবঙ্গে যে সরকার চলছে সেটা ভুয়ো সরকার, এরাজ্যে যারা ভোটে হারিয়ে সে মুখ্যমন্ত্রী হয় আর যে ভোটে যেতে সে বিরোধী দলনেতা হয়। এবার যখন প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা তালিকা থাকে তাতে যেন স্বচ্ছতা থাকে এবং যাদের প্রয়োজন তারা যেন বর পায় না হলে বিজেপির পক্ষ থেকে বৃহত্তর আন্দোলন করা হবে বলে জানালেন গৌরীশংকর ঘোষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here