নিখিল কর্মকার, নদীয়াঃ
স্থানীয় মসজিদ কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে শুক্রবার রাতে নদীয়ার শান্তিপুর পুরসভার ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের সুত্রাগড় ধাইপাড়া এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা দেখা দেয়। রাত দশটা নাগাদ বৃষ্টি চলাকালীন ওই এলাকা তখন বিদ্যুৎহীন ছিল। সেই সময় বেশ কয়েকজন সশস্ত্র দুষ্কৃতী ওই এলাকার অন্তত পাঁচটি বাড়িতে হামলা চালায়। লাঠিসোটা, ধারালো অস্ত্র নিয়ে ওই এলাকার কয়েকটি বাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর করে। ইটপাটকেল ছোড়া হয়। ইটের আঘাতে একজন অন্তঃসত্ত্বা মহিলা সহ কয়েকজনের সামান্য আঘাত লাগে। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, দুষ্কৃতীরা ঘরের মধ্যে ঢুকে লুঠপাটও করে।একজনের ঘরে ঢুকে নগদ ৫৫ হাজার টাকা, কাপড়ের  গাঁট সহ কয়েকটি জিনিস নিয়ে যায়। পাশেই আরেকটি বাড়ি থেকে তাঁত শাড়ির কাপড়ের গাট লুট করে নিয়ে, বাড়ির বারান্দায় থাকা দুটো মোটরসাইকেল ভেঙে তছনছ করে দেয়। পরে খবর পেয়ে শান্তিপুর থানার পুলিশ এসে পরিস্থিতি সামাল দেয়। এলাকায় সারারাত পুলিশের টহলদারি ছিল। যদিও শনিবার সকালে পুলিশ চলে যায়। স্থানীয় বাসিন্দাদের আশঙ্কা, শনিবার রাতে ফের হামলা চালাতে পারে দুষ্কৃতীরা। 

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, ওই এলাকার একটি মসজিদ কমিটির দায়িত্বে ছিলেন যে ক্যাশিয়ার, তার বিরুদ্ধে ছিল দুর্নীতির অভিযোগ। শুক্রবার সন্ধ্যার পরে এলাকার কয়েকজন বসে মসজিদের নতুন কমিটি গঠন করেন। বদল করা হয় ক্যাশিয়ার। এরপর পরিস্থিতি কিছুক্ষণের জন্য শান্ত থাকলেও  বরখাস্ত হওয়া ক্যাশিয়ার নিজের মোটরবাইকের কাচ ভেঙে উত্তেজনা তৈরী করার চেষ্টা করে। তারই জেরে রাত দশটা নাগাদ ওই এলাকায় যখন  বিদ্যুৎ ছিল না, তখন প্রায় কুড়ি জনের একদল সশস্ত্র দুষ্কৃতী ওই এলাকায় পাঁচটি বাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করে। সেই ঘটনার জেরে এখনও  আতঙ্কিত হয়ে আছেন এলাকার লোকজন। শান্তিপুর থানায় লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে, দোষীদের গ্রেপ্তারের ব্যাপারে পুলিশি তৎপরতা চলছে বলে জানা যায় প্রশাসনিক সূত্রে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here