Breaking News

লকডাইনকালে রাস্তার কুকুরদের খাওয়ার যোগাতে এগিয়ে এলো ভবা পাগলার পাগল ভক্তরা

 শ্রাবনী ঘোষ, কালনাঃ করোনা ভাইরাস দ্রুত ছড়াচ্ছে কালনা মহকুমা জুড়ে, কিন্তু দিন দিন বেড়েই চলেছে মৃত্যুর হার, সংক্রমণ আটকাতে রাজ্য সরকার বাংলা জুড়ে লকডাউন ঘোষণা করেছেন ফলে পার্কে সহ বন্ধ হয়ে গেছে দোকানপাট। কালনার এস.টি.কে.কে সড়কের দু’পাশে রয়েছে প্রচুর খাবারের দোকান, হোটেল, কিন্তু খাবারের দোকান বন্ধ থাকার কারণে পথ কুকুররা অসহায় এবং খাদ্য না পেয়ে অনাহারে দিন কাটাচ্ছে, এসব অসহায় ও অনাহার কুকুরের পাশে দাঁড়ালো ক্ষ্যাপা বাবার ক্ষ্যাপা ছেলে কালী সাধক ভবা পাগলার পাগল ভক্তরা। ব্যবসায়ী শ্যাম সিংহ রায়ের উদ্যোগে রাত্রি হলে প্রায় ১৬০ থেকে ১৭০ টি পথ কুকুরদের মাংস ও ভাত খাবার আয়জন করলো। এই কর্মসূচি শুধু আজ নয় যতদিন লকডাউন চলবে ততদিন এই কুকুরদের খাবাবেন দাবি করেন শ্যাম বাবু।

কথাতেই আছে জীব সেবা মানেই শিব সেবা, গত বছরের লকডাউনে অসহায় ও ক্ষুদার্থ গোটা কালনা জুড়ে কয়েকশো পথ কুকুরদের মাংস ভাত খায়ানো শুরু করেন কালনার ব্যাবসায়ী শ্যাম সিংহ রায়, এই মহৎ কাজে তার কয়েকজন বন্ধুরা পাশে দাঁড়ায়, যে টোটো রিকসই কুকুরের খাবার বহন করেন সে চালক পুরো অর্থ ছাড়াই শ্রম দেন, কালনার কালী সাধক ভবা পাগলার পাগল ভক্ত শ্যামবাবু নিজের গাঁটের কড়ি খরচ করে বন্ধু বান্ধদের সাথে নিয়ে যোগ্য রাঁধুনির সাহায্যে মাংস ভাত রান্না করে পথ কুকুরদের খাওয়ানোর কাজ এগিয়ে নিয়ে যেতে শুরু করে, রাতে কুকুরদের খাওয়ানো শেষ না হলে সে নিজেও খান না, বাবা ভবা পাগলার এই ক্ষ্যাপা ভক্ত শ্যামবাবুর কাজে খুশি পশু প্রেমী থেকে শুরু করে কালনা বাসিরাও।

About Burdwan Today

Check Also

সরকারি সাহায্যের অভাবে হয়তো হারিয়ে যাবে বহু প্রাচীন এই শিল্পকলা

অর্পণ নন্দী, কাটোয়াঃ পূর্ব বর্ধমান জেলার কেতুগ্রাম দু’নম্বর ব্লকের বিলেশ্বর পঞ্চায়েতের অন্তর্গত কোমডাঙা গ্রাম জুড়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *