টুডে নিউজ সার্ভিস, বর্ধমানঃ তৃণমূল থেকে যারা বিজেপিতে গেছে তাদেরকে সহ্য করতে পারছে না বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপিতে যোগদানের জন্য যে আশ্বাস শুভেন্দু অধিকারী তাকে দিয়েছিল তা থেকে সরে গেছে শুভেন্দু। পূর্ব বর্ধমান জেলার শহর বর্ধমানে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উল্লাসে নিজের বাড়িতে বসে ফের বেসুরো দলবদলু সাংসদ সুনীল মণ্ডল। ২০১৯ এর লোকসভা ভোটে তৃণমূলের টিকিটে জেতার পর বিজেপির পালে হাওয়া দেখে হঠাৎ বেসুরো হয়েছিলেন বর্ধমান পূর্বের এই সাংসদ। এরপর শুভেন্দুর হাত ধরে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেন তিনি। তৃণমূলের টিকিটে জিতে সাংসদ হয়ে  বিজেপিতে যোগদানের পর তার সাংসদ পদ খারিজের দাবী জানানো হয় তৃণমূল নেতৃত্বের পক্ষ থেকে। রাজ্যে ১৭০ – ১৮০ টি আসনে বিজেপি জয়লাভ করার  দাবী জানালেও  ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ল্যান্ডস্লাইড জয় হয়। তারপর থেকেই একে একে ফের বেসুরো হতে থাকে তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যাওয়া নেতারা। পাকাপাকিভাবে মুকুল রায়ের তৃণমূলে ফেরার পর থেকেই বেসুরোর সংখ্যা বাড়তে থাকে বিজেপির মধ্যে। এবার সেই তালিকায় নবতম সংযোজন হতে চলেছেন সুনীল মণ্ডল বলে মনে করছেন রাজনৈতিক মহল।

 এদিন সুনীল মণ্ডল বিস্ফোরক মন্তব্য করে জানান, শুভেন্দু অধিকারী ও তিনি মিলে একসাথে নেতৃত্ব দিয়ে বিজেপি করবেন বলে আশ্বাস পেয়েছিলেন শুভেন্দুর কাছ থেকে। কিন্তু হিসাব মত শুভেন্দু তার কথা রাখে নি। তিনি দলে কার্যত কোনঠাসা হয়েই পরেছিলেন। তাছাড়া তিনি বাম আমলে যে ঘরানায় সংগঠনটা করে এসেছিলেন তার থেকে অনেক নীতিগত ফারাক রয়েছে বিজেপিতে। বিধানসভায় দল এ রাজ্যে জিততে না পারার পর বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, তথাগত রায়ের দলবদলুদের নিয়ে কটাক্ষ তাকে আরও মর্মাহত করে দিয়েছে বলে এদিন জানিয়েছেন সুনীল বাবু। তবে এখনই দল ছাড়ার কথা না ভাবলেও পরে কি হবে সে বিষয়ে নিশ্চিতকরে কিছু জানাতে চান নি দলবদলু এই সাংসদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here