দেবজিৎ দত্ত, বাঁকুড়াঃ সোমবার বিকেলের ঝড়-বৃষ্টিতে দক্ষিণ দামোদর নদীর তীরবর্তী  বেশির ভাগ এলাকায় বোরো ধান চাষের ক্ষতি হয়। ক্ষতি হয়েছে বিভিন্ন ফসলেরও বলে জানান চাষিরা। ওই দিন বিকাল সাড়ে ৬টা নাগাদ আকাশ কালো করে শুরু হয় ঝোড়ো হাওয়া। সঙ্গে চলে জোর বৃষ্টি। ঝড়-বৃষ্টির দাপটে মাঠে জল জমে যায়। এই ব্লকের বিভিন্ন এলাকায় অনেক বিঘা জমির ধানের মাথা মাটিতে নুইয়ে পড়ে। বহু জমিতে বোরো ধান চাষ হয়েছে। যার মধ্যে ৭০ শতাংশের উপর জমির ধান পাকতে শুরু করেছিল। দক্ষিণ দামোদর তীরবর্তী চাষিরা। চাষিরা বোরো ধান চাষের উপর অনেকটা নির্ভরশীল। ওই সব এলাকায় আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই ধান কাটা শুরু হওয়ার কথা ছিল। লকডাউনের সময়ে কী ভাবে মজুর মিলবে, কী ভাবে পাকা ধান কেটে ঘরে তোলা হবে— তা নিয়ে যখন চিন্তিত চাষিরা সে সময়ে ঝড়-বৃষ্টির দাপটে ফসল নষ্ট হওয়ার চিন্তায় পড়েছেন চাষিরা।

এক চাষী বলেন, ‘‘এ বছর বোরো ধানের ফলন ভালই হয়েছে। একদিকে মহামারীর প্রাদুর্ভাব কিভাবে  কি করব, বুঝতে পারছিলাম না। তার মধ্যে ঝড়-বৃষ্টিতে বড় ক্ষতি। কিভাবে মাঠের ধান ঘরে তুলবে সেই চিন্তায় বোরো চাষীরা ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here