বিশ্বজিৎ বিশ্বাস, নদীয়াঃ এলাকায় রমরমিয়ে চলে জুয়ার ঠেক, মা প্রতিবাদ করায় ছেলের কাছ থেকে কেড়ে নেওয়া হলো মোবাইল, অপমানে আত্মঘাতী কিশোর। পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দোষীদের কঠিন শাস্তির দাবি জানিয়েছেন পরিবার এবং স্থানীয়রা। নদীয়ার শান্তিপুর থানার আরবান্দি ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের বড় জিয়াকুর এলাকার ঘটনা। মৃত কিশোরের নাম সুপ্রভাত দেব(১৭) জানা যায়, বড় জিয়াকুর এলাকার ফাঁকা মাঠে রাস্তার পাশের একটি চায়ের দোকানে দীর্ঘদিন ধরেই রমরমিয়ে চলে জুয়ার ঠেক। অভিযোগ এলাকার অধিকাংশ যুবক জুয়ার নেশায় জর্জরিত। মূলত তারই প্রতিবাদে গতকাল এলাকার মহিলারা ঘটনাস্থলে গিয়ে জুয়ার ঠেক বন্ধ করার দাবি জানায়। অভিযোগ, মৃত কিশোর সুপ্রভাত দেবের মা ওই প্রতিবাদে সামিল থাকার কারণে হঠাৎ ছেলের কাছ থেকে পাওনা টাকা তৎক্ষণাৎ শোধ করে দেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। কিন্তু টাকা শোধ দিতে না পারায় তার মোবাইল কেরে রেখে দেওয়া হয়। যেহেতু ওই দোকানে ওই কিশোরের যাতায়াত ছিল সেই কারণেই অপমানে চাপ সহ্য করতে না পেরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে ঐ কিশোর।

  পরিবারের দাবি দীর্ঘদিন ধরেই ওই এলাকায় অবাধে জুয়ার আসর বসে। প্রশাসন কোন পদক্ষেপ নেয় না বলে অভিযোগ। তারা চাইছেন প্রশাসন পদক্ষেপ নিয়ে অবিলম্বে জুয়ার ঠেক বন্ধ করুক এবং অভিযুক্তকে আইনানুগ কঠোর শাস্তি দিক। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে শান্তিপুর থানার পুলিশ। যদিও এই ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here