টুডে নিউজ সার্ভিস বর্ধমানঃ পূর্ব বর্ধমান জেলার শহর বর্ধমানের আজ্ঞিরবাগান ২নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে খাবারের হোটেল  ভাঙ্গাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা বুধবার। এদিন হোটেলের মালিক সেখ মুসকানের ছেলে সেখ আকতার জানান আমাদের হোটেলে বুধবার এই জাতীয় সড়কের ধারে হঠাৎ করেই ৩০ থেকে ৩৫ জনের মত ছেলে এসে ভাঙচুর চালায় হোটেলে থাকা টিভি, সিসিটিভি, কড়াই, চেয়ার সমস্ত কিছু ভাঙচুর করে চলে যায় বলে অভিযোগ। তিনি আরও জানান প্রথমে বাড়িতে গিয়েছিলো আমাদের সেখানে কাউকে না পেয়ে বাড়িতে জলের পাইপ সহ বেশ কিছু জিনিস ভাঙচুর করে আমাদের হোটেলে চলে এসে এখানে ভাঙচুর চালায়। 

এদিন হোটেলে থাকা এক কর্মচারী অধির গুরুং বলেন সকালে এখন শুধু আমি চা বিক্রি করি লকডাউন বলে। হঠাৎ দেখি ১০০ থেকে ১৫০ ছেলে সহ মেয়েরাও এসে ভাঙচুর চালাতে শুরু করে। এদিন তিনি আরও বলেন হোটেলের মালিক সেখ মুসকান বিজেপি করে তার থেকেই হয়তো তৃণমূলের বড় বড় নেতাদের ইন্ধনেই এই ভাঙচুর চালাতে আসে তৃণমূলের কর্মীসমর্থকেরা। এদিন তিনি আরও বলেন এই সমস্ত ছেলেরা হোটেলে এসে ফ্রীতে খেয়ে যায় পয়সাও দেয়না। এ বিষয়ে এদিন  জেলার মুখপাত্র প্রসেনজিৎ দাস বলেন দেখুন অভিযোগ আমাদের তৃণমূলের যারা নেতৃত্বরা রয়েছেন তারা বিজেপি কর্মীদের ফোন করে ডেকে এনে ঘরে ঢুকিয়ে দিচ্ছে এবং তাদের পরিষেবা দেওয়ার জন‍্য তাদের বাড়ির বাজারও করে দিচ্ছে। সুতরাৎ এইসব অভিযোগ বাজার গরম করার জন‍্য করছে তারা। এটি বিজেপির একটি দন্ড শুরু হয়েছে বর্ধমান শহরে। যিনি প্রার্থী তার সাথে দলের একটা দন্ড শুরু হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here