Breaking News

করোনামুক্ত হয়ে নতুন জীবন পেল সদ্যোজাত

সুপ্রিয় পরামানিক, পূর্ব মেদিনীপুরঃ সদ্য জন্ম হওয়া এক দিনের বাচ্চা করোনা পজিটিভ, ৬ দিনের মাথায় সুস্থ করে পরিবারের হাতে তুলে দিল   কোলাঘাটের শুশ্রুসা শিশু সেবা নিকেতনের  মেডিক্যাল টিম।  করোনা মুক্ত হয়ে নতুন জীবন পেল  ৬ দিনের সদ্যজাত শিশু। করোনা মুক্ত ৬ দিনের  প্রথম সন্তানকে কোলে পেয়ে বেজায় খুশি পাঁশকুড়া  সরাইঘাট গ্রামের সদ্যজাত শিশুর পরিবার ।  

   ৬ দিন আগে পাঁশকুড়া  সরাইঘাট গ্রামের মিষ্টি ভৌমিক স্থানীয় এক বেসরকারি নার্সিংহোমে একটি পুত্রসন্তানের জন্ম দেন জন্মের পরই কোনো রকম সাড়াশব্দ ছিল না শিশুর। হতবাক হয়ে কোলাঘাটের শুশ্রুসা শিশু সেবা নিকেতনে নিয়ে যান শিশুটির বাবা ও মা। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর শ্বাসকষ্ট দেখা দিতে থাকে এক দিনের ওই সদ্যোজাত শিশুর মধ্যে। সন্দেহ হওয়ায় তাঁর করোনা পরীক্ষা করার নির্দেশ দেন ডাক্তার প্রবীর ভৌমিক।   সন্দেহবশত করোনার রিপোর্ট পজিটিভ আসে ওই এক দিনের শিশুর। পরে সেখানে ভেন্টিলেশনে রেখে শিশুটির চিকিৎসা শুরু  করেন প্রবীর ভৌমিক এবং তাঁর মেডিক্যাল টিম। সেবা নিকেতনের ডাক্তার বাবুর বক্তব্য  সদ্যোজাত বাচ্চাটির সিআরপি স্বাভাবিকের থেকে যথেষ্ট বেশি পরিমাণ ছিল এবং মাতৃগর্ভেই কিছুটা ইনফেকশনের শিকার হয়েছিল ওই শিশুটি। ফলে প্রথম দিকে চিকিৎসা করতে বেশ কিছুটা সমস্যার সম্মুখীন হয়েছিল ডাক্তার এবং তার মেডিক্যাল টিম পরে সমস্যার সমাধান খুজে ৬ দিনের মাথায় শিশুটিকে সুস্থ করে তার পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া সম্ভব হয়েছে। কী করে এক দিনের বাচ্চা করোনা পজেটিভ হতে পারে সে প্রশ্নের উত্তরে ডাক্তার প্রবীর ভৌমিক   জানিয়েছেন প্রত্যেকটা গর্ভবতী মহিলাদের উচিত কোভিড প্রোটোকল  ভাবে মেনে চলা বেশ কিছু ক্ষেত্রে গর্ভবতী মহিলারা কোভিড প্রোটোকল মানেন না এবং অনেকক্ষেত্রে  ডাক্তারবাবুরাও সেই পরামর্শ তাদের দিয়ে থাকেন না। যার ফলেই সদ্যজাত বাচ্চারা কোরনা পজেটিভ হচ্ছেন। এর আগেও এই নার্সিংহোমেই বেশ কয়েকটি সদ্যোজাত শিশুর মধ্যেও করোনা পজিটিভ দেখা গিয়েছিল যা সুস্থ করাও সম্ভব হয়েছে  ।  সদ্যোজাতদের করোনার হাত থেকে  বাঁচাতে ডাক্তারবাবু হাইলি রিকমেন্ডেশনও দিয়েছেন,  প্রত্যেকটি গর্ভবতী মহিলাকে গর্ভাবস্থায় থাকাকালীন  নির্দিষ্টভাবে  কোভিড প্রোটোকল মেনে চলা অত্যন্ত জরুরি। তবেই সদ্যোজাতদেরকে করোনার হাত থেকে রক্ষা করা সম্ভব হবে। 

অপরদিকে জন্মের পর বাচ্চার করুণ অবস্থা দেখে বাচ্চাকে ফিরে পাওয়ার  সমস্ত আশাই ছেড়ে দিয়েছিলেন সদ্যোজাত শিশুর বাবা ও মা। ছয় দিন পর বাচ্চাকে ফিরে পেয়ে ভগবানের জায়গা দিয়েছেন কোলাঘাটের শুশ্রুসা সেবা নিকেতনের ডাক্তার ও তার মেডিক্যাল টিমকে।

About Burdwan Today

Check Also

দুর্গাপুরে শুরু হলো অরণ্য সপ্তাহ পালন

টুডে নিউজ সার্ভিস, দুর্গাপুরঃ ‘বাংলার মুখ’ এর উদ্যোগে সবুজায়নের বার্তা নিয়ে ১৪ জুলাই থেকে পশ্চিম …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *