দেবজিৎ দত্ত, বাঁকুড়াঃ এবার ‘ভুয়া’ সেনা কর্মীর খোঁজ মিললো বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরে। নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ঐ ‘ভুয়া সেনা কর্মী’কে আটক করেছে। যদিও বছর সতেরোর ঐ কিশোর নাম পুলিশের তরফে প্রকাশ করা হয়নি।

    পুলিশ সূত্রে খবর, ঐ কিশোর নিজের নামে সেনাবাহিনীর ‘নকল’ পরিচয়পত্র তৈরি করে পরিচিতজনদের দেখায়। এমনকি সেনাবাহিনীর পোশাক পরে সোশ্যাল সাইটে ছবি পোষ্ট করে। পরে তার এক বন্ধুর দাদা জনৈক সৌরভ সাহার নামেও একই ধরণের কার্ড তৈরি করে। এমনকি কাজে যোগ দেওয়ার আগে সেনাবাহিনীর অফিসে ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা দিতে হবে বলে জানায়।  সন্দেহ হওয়ায় সৌরভ সাহা বিষয়টি বিষ্ণুপুর থানায় জানান। পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমে সেনাবাহিনীর ‘জাল’ পরিচয়পত্র তৈরিতে সহায়তা করার জন্য প্রসেনজিৎ মিস্ত্রী নামে এক স্টুডিও মালিককে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। একই সঙ্গে সেনাবাহিনীর পোশাক, দু’টি জাল পরিচয়পত্র ও একটি মোটর বাইক পুলিশ আটক করেছে। একই সঙ্গে নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে বিষ্ণুপুর থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বলে জানানো হয়েছে।

   পুলিশের হাতে আটক ঐ কিশোরের বাবা বলেন, তার ছেলে সেনাবাহিনীতে চাকরী করেনা, এনসিসি প্রশিক্ষণ নিত। একই সঙ্গে কার্ড ছাপিয়ে তার ছেলেকে ফাঁসানো হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here